যে কারণে লেবুর শরবত খাবেন

টক! শব্দটা শুনলেই জিহ্বায় জল চলে আসে। এই টক জাতীয় ফলগুলো কেবল মুখরোচকই না বরং এতে আছে প্রচুর ভিটামিন সি সহ মিনারেল। আরো আছে মুখে স্বাদ বাড়ানোর আর হজমের শক্তি বৃদ্ধি করার এসিড। টক ফলের নাম শুনলেই মাথায় আসে লেবুর কথা। এটি যেমন মুখরোচক তেমনি এই গরমে স্বস্তির একটি প্রধান উৎস। সারাদিনের ক্লান্তির অবসান ঘটাতে এক গ্লাস লেবুর শরবতের তুলনা নেই।

হজম শক্তি বাড়ায়:
রোজ সকালে এক গ্লাস কুসুম গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে হজমের শক্তি বৃদ্ধি পায়। গ্যাসজনিত সমস্যা যাদের আছে এটি তাদের জন্য উপকারী। কারণ, লেবুর পানি খুব সহজে পরিপাক নালির মধ্যে থাকা টক্সিন শরীর থেকে বের করে দেয়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে: 
লেবুর মধ্যে রয়েছে ভরপুর ভিটামিন সি। যে কারণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে।

এনার্জি জোগায়:
লেবুর শরবত, ইনস্ট্যান্ট এনার্জি বৃদ্ধি করে। রোজ সকালে যদি লেবুর পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে পারেন তবে মেজাজ থাকবে ফুরফুরে আর কাজেও পাবেন শক্তি।

ওজন কমাতে:
ওজন কমাতে বা মেদ ঝরাতে লেবুর তুলনা নেই। এটি খুব দ্রুত কাজ করে। হালকা গরম পানিতে, লেবুর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে আরও ভালো কাজ করে।

অ্যান্টিভাইরাল অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল: 
এই দুটি গুণও লেবুর মধ্যে রয়েছে। ফলে, ভাইরাস ও ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ এড়াতে লেবুর পানি খেতে পারেন। বিশেষ করে ফ্লু, সর্দি-কাশি ও গলাব্যথা হলে।

মস্তিষ্ক ভালো রাখে: 
লেবুর মধ্যে রয়েছে অতিমাত্রায় পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম। যা শুধু মস্তিষ্ক নয়, স্নায়ুকেও সতেজ রাখতে সাহায্য করে। চিন্তাশক্তি বাড়ায়।

ক্যান্সার প্রতিরোধক: 
লেবুর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট বিভিন্ন ধরনের ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া এটি রক্ত পরিষ্কার করতেও সাহায্য করে। এবং মুখের স্বাদ বৃদ্ধি করে।

 

Facebook Comments