জেনে নিন রান্নাঘরের টুকিটাকি

নিত্যদিনের সংসার সামলাতে প্রায় সবাইকেই কোনো না কোনো সংকটে পড়তে হয়। সংসারের কত কাজ থাকে যেগুলো করতে গিয়ে হিমশিম খাওয়া প্রতিদিনকার ঘটনা। আবার কিছু কাজ এত সময় সাপেক্ষ যে অন্যকাজ সংকটাপূর্ণ হয়ে ওঠে। বিশেষ করে রান্নাঘর সামলাতে সবচেয়ে হিমশিম খেতে হয় চাকরিজীবীদের।
নারী, পুরুষ নির্বিশেষে রান্না করা, কিচেন সামলানো, ফ্রিজ পরিস্কার, অভেন পরিস্কার করতে একটু সমস্যায় পড়েন। রান্না দ্রুত করতেও অনেক সমস্যা হয় অনেকের তাদের জন্যই আজকে কিছু টিপস।
>> পরদিন রান্না করার জন্য মাংস সেদ্ধ এবং ঠাণ্ডা করে ফ্রিজে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। এক সপ্তাহের জন্যও গরু ও খাসির মাংস সেদ্ধ করে রাখতে পারেন।
>> রান্নার সময় গরম পানি ব্যবহার করুন।
>> ফ্রিজের মধ্যে আঁশটে গন্ধ এড়াতে ফ্রিজে এক টুকরো কাঠ কয়লা রেখে দিন। আঁশটে গন্ধ থাকবে না।
>> মাংস তাড়াতাড়ি সেদ্ধ করতে চাইলে খোসাসহ এক টুকরো কাঁচা পেঁপে দিন।
>> মাছ, মাংস বা ডিমের ঝোলে অনেক সময় লবণ বেশি হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে ওই তরকারিতে কয়েকটি সিদ্ধ আলু ভেঙে দিন। লবণ কমে যাবে।
>> মুরগির মাংস বা কলিজা রান্না করার সময় ১ টেবিল চামচ সিরকা দিন। এতে যেমন গন্ধ থাকবে না, তেমনি তাড়াতাড়ি সিদ্ধও হবে।
>> মাছ ভাজার সময় তেল ছিটলে একটু লবণ ছড়িয়ে দিন। তেল আর ছিটবে না।
>> আলু ও ডিম একসঙ্গে সিদ্ধ করুন। দুটো দুই কাজে ব্যবহার করলেও সিদ্ধ তাড়াতাড়ি হবে।
>> ডাল তাড়াতাড়ি রান্না করতে আগেই ভিজিয়ে রাখুন।
>> মসলাপাতি তাড়াতাড়ি খুঁজে পেতে কৌটার গায়ে নাম লিখে রাখুন।
>> পরদিন কী রান্না করবেন তা আগের রাতেই ঠিকঠাক করে প্রস্তুতি নিন। তাহলে অল্প সময়ে রান্না হবে।
>> রান্না করার আগে অবশ্যই মাছ ও সবজির কম্বিনেশনের ব্যাপারে লক্ষত রাখবেন।
>> ডিম সেদ্ধ করতে পানিতে সামান্য লবণ দিন। ডিম খেতে সুস্বাদু হবে। গরমাবস্থায় ডিম ছিলবেন না, ঠান্ডা করে ছিলুন এতে খোসায় লেগে ডিম নষ্ট হবে না।
Facebook Comments